• বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:২৩ অপরাহ্ন
  • English English French French German German
ব্রেকিং নিউজ
কুড়িগ্রামের রাস্তায় ছুটে চলেছে আইপিডিসি ‘ভালো বাসা’র গাড়ি গাইবান্ধার রাস্তায় ছুটে চলেছে আইপিডিসি ‘ভালো বাসা’র গাড়ি শিশুদের নিরাপদ যত্ন নিশ্চিতে প্যারাসুট জাস্ট ফর বেবি ও নাবিলা’র আহ্বান বাংলাদেশের বাজারে টেকনো’র নতুন চমক স্পার্ক ৮ প্রো দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ড কর্মচারী ইউনিয়নের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে মাসুদ আলম সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে মওদুদ নির্বাচিত ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি সীমান্তে ৮ মাসে প্রায় ৬ কোটি টাকার মাদকসহ বিভিন্ন মালামাল আটক প্যারাসুট নারিকেল তেল-এর নতুন উৎসব প্যাক বাংলাদেশে ৩ জিবি’র স্পার্ক সেভেন স্মার্টফোন নিয়ে এলো টেকনো টেকনো ক্যামন ১৭ সিরিজ এখন দেশের সকল আউটলেটে পাওয়া যাচ্ছে বাজারে নিজেদের অবস্থানের সাথে মিল রেখে টেকনো’র নতুন স্লোগান – “স্টপ অ্যাট নাথিং”

পঞ্চগড়ে চারদিন ধরে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে একটি পরিবার

Reporter Name / ৫৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশ : সোমবার, ২ আগস্ট, ২০২১

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

চারদিন ধরে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে জেলার সদর উপজেলার পঞ্চগড় ইউনিয়নের ডুডুমারি মাহানপাড়া গ্রামের একটি পরিবার। ফরহাদ ফেরদৌস নামে এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী (পান দোকানদার) তিন বছর ধরে ওই গ্রামে বসবাস করে আসছে। নিজের জমি দাবি করে একই গ্রামের আল মামুন ও হাফিজুল ইসলাম দলবল নিয়ে তার বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও মারপিট করে। এরপর থেকে দরিদ্র ভুক্তভোগী ওই পরিবারটি খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন কারছে।
এ ঘটনায় ফরহাদ ফেরদৌস বাদি হয়ে রবিবার পঞ্চগড় সদর থানায় আল মামুন ও হাফিজুল ইসলামসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। তবে পুলিশ এখন পর্যন্ত কোন আসামীকেই গ্রেফতার করতে পারেনি।
মামলার এজাহার ও সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে, ফরহাদ ফেরদেীস পৈতৃক ১ বিঘা জমিতে চাষাবাদ করে ভোগদখল করে আসছে। ওই জমি নিয়ে আল মামুন ও হাফিজুলের সঙ্গে ফরহাদের বিবাদ চলছিল। এ নিয়ে আদালতে মামলাও চলছে। চলতি বছরের ৩ জুলাই আল-মামুন ও হাফিজুল ইসলামসহ তাদের লোকজন ওই জমি দখল করতে আসে। এসময় ফরহাদের মা ফয়জান নেছা ও স্ত্রী শাহিনা বাঁধা দিলে আসামীরা তাদের মারপিট করে। মারপটি ও হত্যার চেষ্টার ঘটনায় ৬ জুলাই পঞ্চগড় সদর থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। ১৫ জুলাই আসামীরা জামিনে মুক্তি পেয়ে পরদিন ১৬ জুলাই মামলা তুলে নিতে ফরহাদকে হুমকি দেয়। পরদিন আবারও ফরহাদ ফেরদৌস জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে আল মামুন, হাফিজুল, জমিরুল ইসলামের নামে একটি সাধারণ ডাইরী করেন এবং আসামীদের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা জারি করে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে গত শুক্রবার আসামীরা দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ফরদাদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর, লুটপাট করে। এসময় ফরহাদের মা ফয়জান ও স্ত্রী শাহিনা বাঁধা দিলে আসামীরা তাদেরকেও মারপিট করে। পরে স্থানীয়রা পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
ভুক্তভোগী ফরহাস ফেরদৌস জানান, আসামীরা বারবার জোরপূর্বক আমার জমি দখলে নিতে চায়। তারা কয়েক দিন পর পর আমার জমি দখল করতে আসে মারপিট করে হুমকি দেয়। আসামীরা আমার তিনটি ঘরে আগুন দেয়। এতে নগদ টাকা, শুকনো মরিচ, পাট, আসবাবপত্রসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সম্পুর্ণ পুড়ে যায়। আমি নিরুপায় হয়ে এখন খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছি। আমার ঘর বাড়িতে আগুন, ভাংচুর ও আমার মা এবং স্ত্রীকে মারপিটের বিচাই চাই।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত আল মামুনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও মারপিটের অভিযোগ অস্বীকার করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পঞ্চগড় সদর থানার উপ-পরিদর্শক মো. কাইয়ুম আলী জানান, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। তদন্তে আসামীরা দোষী সাব্যস্ত হলে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।
পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল লতিফ মিয়া বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর ও মারপিটের ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ