• শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ১২:২৭ অপরাহ্ন
  • English English French French German German
ব্রেকিং নিউজ
বগুড়ায় ১ হাজার পিস ইয়াবাসহ মাদক সম্রাট আসিক গ্রেফতার! নিরাপদ সড়ক চাই ,ফুলবাড়ী উপজেলা শাখার উদ্যোগে সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে পার্বতীপুরে জাগো রংপুরের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত মানব নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির অভিষেক ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠান। আপন এক্সপ্রেস কুরিয়ার এন্ড পার্সেল সার্ভিস লিঃ এর প্রধান কার্যালয়ের ফিতা কেটে উদ্বোধন করলেন ডঃ মির্জা জলিল ছেলে ‘হত্যা’র বিচারের দাবিতে বাবার সংবাদ সম্মেলন জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত সমাজের অবহেলিত মানুষের পাশে থাকব ————‘লৌহমানব’ মোহাম্মদ আলী চৌধুরী লালমনিরহাটে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে লাখ টাকা জরিমানা বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে হামলা, থানায় অভিযোগ, ৭ নেতাকর্মীকে অব্যাহতি টেকনো স্পার্ক ৮ প্রো’র ৪ জিবি ভার্সন এখন বাংলাদেশে

কঠোর লকডাউনে বৃদ্ধি হয়নি কাঁচা বাজারের সবজির দাম।

Reporter Name / ১০১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৬ জুলাই, ২০২১

রাজশাহী প্রতিনিধি :

পণ্যবাহী ট্রাক বা পিকআপকে লকডাউনের আওতামুক্ত রাখা হয়েছে এর ফলে প্রভাব পড়নি রাজশাহীর বাঘার কাঁচা বাজারে। মঙ্গলবার (৬জুলাই) উপজেলার কয়েকটি বাজারে এর বাস্তব চিত্র দেখা গেছে। স্বাভাবিক সময়ের মত ব্যবসায়ীরা একই দামে বিক্রি করছেন বলে জানা গেছে। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মধ্য কাঁচাসবজি ছাড়া ক্রমাগত মূল্যবৃদ্ধি ভাবিয়ে তুলেছে বাঘার নিম্ন ও মধ্যম আয়ের মানুষকে।

বাঘা বাজারের এক কাঁচা সবজি ব্যবসায়ী জিল্লুর রহমান জানান,করোনা কালিন সময়ে বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম কমে গেছে। বাজারে ক্রেতাসমাগম কম।

বাঘা বাজারে কাঁচাসবজ্বি বেগুন প্রতি কেজি ৩০-৩৫ টাকায়, পটল ২০-২৫ টাকা, ঝিঙ্গা ২০-৩০ টাকা, কোল্ডস্টোরেজ আলু ২০ টাকা, কাঁকরোল ৪০-৫০ টাকা,মিষ্টি কুমড়া ১৫-২০ টাকা,কাঠুয়া ডাটা ১৫-২০ টাকা কেজি, কাঁচা মরিচ ৩০-৪০ টাকা,লেবু ১০-১৫ টাকা (হালি) টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়াও পিয়াজ প্রতি কেজি ৪৫-৫০ টাকা,রসুন ৫০-৬০,শুকনা মরিচ ১৫০-২০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
এ-ই দিকে আদার দাম কিছু দিন আগে ৬০ টাকা কেজি থাকলেও সামনে কুরবানির ঈদ উপলক্ষে ১০০-১২০ টাকা খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে।

উপজেলার তেঁথুলিয়া হাটে বাজার করতে আসা ক্রেতা রবিউল ইসলাম জানান, লকডাউনে কাঁচামালের দাম তেমন না বাড়লেও মাছ কিংবা গোশত হাটের দিকে নিম্ন শ্রেণির ব্যক্তিরা যেতে পারছে না কেননা এ-ই গুলো বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ