• মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৯:৩৯ অপরাহ্ন
  • English English French French German German
ব্রেকিং নিউজ
বগুড়ায় ১ হাজার পিস ইয়াবাসহ মাদক সম্রাট আসিক গ্রেফতার! নিরাপদ সড়ক চাই ,ফুলবাড়ী উপজেলা শাখার উদ্যোগে সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে পার্বতীপুরে জাগো রংপুরের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত মানব নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির অভিষেক ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠান। আপন এক্সপ্রেস কুরিয়ার এন্ড পার্সেল সার্ভিস লিঃ এর প্রধান কার্যালয়ের ফিতা কেটে উদ্বোধন করলেন ডঃ মির্জা জলিল ছেলে ‘হত্যা’র বিচারের দাবিতে বাবার সংবাদ সম্মেলন জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত সমাজের অবহেলিত মানুষের পাশে থাকব ————‘লৌহমানব’ মোহাম্মদ আলী চৌধুরী লালমনিরহাটে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে লাখ টাকা জরিমানা বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে হামলা, থানায় অভিযোগ, ৭ নেতাকর্মীকে অব্যাহতি টেকনো স্পার্ক ৮ প্রো’র ৪ জিবি ভার্সন এখন বাংলাদেশে

দিনাজপুরে করোনা রোগীর কাছেও কিস্তি আদায় করবে গ্রামীণ ব্যাংক

Reporter Name / ৫৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশ : বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১

এল এইচ আকাশ

১৫ জুন ২০২১ মঙ্গলবার সকাল ৬ টা থেকে ২১ জুন পর্যন্ত দিনাজপুর সদরে লকডাউন ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে না আসায় আবারো ২য় ধাপে ২৮ জুন পযর্ন্ত লকডাউন বাড়িয়েছে জেলা প্রশাসন।

লকডাউন কার্যকরে লাঠি হাতে বেশ জোরদার হতে দেখা যাচ্ছে প্রশাসনকে। দিনাজপুরে লকডাউনের মধ্যেও এনজিওর কিস্তি আদায়ের বিষয়টি যেন ধোয়াশার মধ্যেই রয়ে গেছে। দিনাজপুরের বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও জাতীয় কিছু পত্রিকায় কিস্তি আদায়ের খবর আসলেও এনজিও কর্মীদের কথা অনুযায়ী প্রশাসনের যেন নজরী পড়েনি তাদের ওপর।
২৩ জুন বুধবার সকালে উপশহর মিস্ত্রিপাড়ায় টি এম এসএস এনজিও কর্মী মোঃ হেলাল এর সাথে দেখা যায় পুলহাট শাখার টি এম এসএস ম্যানেজার মোঃ শহিদুল ইসলামকে। তিনি জানান আমাদের কোন বন্ধ নেই। আমরা কিস্তি নিবই। তাছাড়া সরকার আমাদের কোন বন্ধের নির্দেশনা দেয় নি । জেলা প্রশাসক থেকে আমরা কোন চিঠিও পাই নি।
বেলা বাড়ার সাথে সাথে মধ্য দুপুরে দেখা যায়, উপশহরের মিস্ত্রি পাড়ায় কিস্তি নিতে বাড়ী বাড়ী ঢুকছেন গ্রামীণ ব্যাংক এনজিও কর্মী অজয় রায় লকডাউনের মধ্যেও কিস্তি নিতে এসেছে কেন? জবাবে তিনি বলেন ব্যাংক,বীমা সবই তো খোলা তো আমরা কেন কিস্তি নিতে পারবো না।তাছাড়া আমাদের অফিসে কোন প্রকার চিঠি আমরা পাই নি। আমাদের অফিস থেকে আমাদের জোর করে পাঠানো হয়েছে। কিস্তি আদায়ের জন্য।
করোনা রোগীর কাছ থেকেও আপনারা কিস্তি আদায় করবেন আপনি বলেছেন এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এখন যারা ঋণ নিচ্ছে আমরা তাদের কে বলছি। মানবতা আজ কোথায় গিয়ে দাড়িছে?

মিস্ত্রিপাড়ার বাসিন্দা আনোয়ারা বেগম জানান, আমি কিস্তি দিতে পারিনি বলে, আমার বাসায় এসেছে গ্রামীণ ব্যাংক এনজিও কর্মী অজয়। এখন দিনাজপুরে করোনায় ছড়াছড়ি তার মাধ্যমে যদি করোনা আসে ?

এবিষয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মোঃ শরিফুল ইসলামের সাথে কথা হলে, তিনি জানান আমরা দিনাজপুরের সব এনজিও গুলোকে কিস্তি আদায় না করার জন্য চিঠি দিয়েছি। আমাকে ০১৭৬১৪৯৩৫২০ এই নাম্বারে মেসেজর মাধ্যমে নাম ও কোন এনজিও জানালে আমি তাদের বিরুদ্ধে আইনআনুক ব্যবস্থা নিব।

২৩ জুন বুধবার দুপুরে উপশহর মিস্ত্রিপাড়ায় গ্রামীণ ব্যাংক এনজিও কিস্তি আদায়কারী এজিও কর্মী অজয় রায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ